নোটিশ
সংবাদকর্মী আবশ্যক: সকল বিভাগের জেলা, উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে কিছু সংখ্যক সংবাদকর্মী ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি জরুরী ভিত্তিতে নেওয়া হবে। আগ্রহীরা  যোগাযোগ: ০১৭২৯২৫৮৬৮০ । অভজ্ঞি সম্পন্ন এবং কাজরে প্রতি দায়িত্বশীল প্রার্থীদের অগ্রাধীকার দেওয়া হবে।
বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৪৮ অপরাহ্ন

বিজ্ঞাপন ১৯

মৌলভীবাজারের এক নারীর সার্বিক প্রচেষ্টায় ১৪টি ঘরে বিদ্যুৎ সরবরাহ

বিশেষ প্রতিনিধিঃ / ১৭৩ বার
সময়: সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

বিজ্ঞাপন ২০

মৌলভীবাজার জেলাধীন সদর উপজেলার এক নারী উদ্যোক্তার সার্বিক প্রচেষ্টায় গ্রাম বাংলার ১৪টি ঘরে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়েছে।

মিসেস ফাতেমা পপি, যিনি উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে মানবসেবায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। যার নিরলস প্রচেষ্টায় গত ৪ সেপ্টেম্বর রাজনগর উপজেলার টেংরা ইউপির অন্তর্ভুক্ত উজিরপুর গ্রামের ১৪টি পরিবার বিদ্যুৎ এর আলোর ছোঁয়া পেয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে ফাতেমা পপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ায় তাঁর সরকার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করে বলেছেন, বিদ্যুৎ ব্যতীত কোনভাবেই কাঙ্খিত উন্নয়ন সম্ভব নয়। একটি দেশের উন্নয়নে বিদ্যুৎ অপরিহার্য। কাজেই শুধু শহরেই নয় তৃণমূলের গ্রাম গঞ্জের ঘরে ঘরে বিদ্যুতের সেবা পৌঁছে দেয়ায় সরকার বদ্ধপরিকর।

তিনি আরও বলেন, ব্যক্তিগত কাজে ঐ এলাকায় গিয়ে দেখতে পাই বিদ্যুৎ এর আলো-বিহীন এলাকার মানুষ খুবই কষ্টে রাত্রিযাপন করে আসছেন। আমাদের জেলা প্রথম গ্রেড তালিকাভুক্ত কিন্তু এই এলাকায় বিদ্যুৎ নেই তা কেমন করে মেনে নিতে পারি। আলোর জন্য শিক্ষার্থীদের পড়ালেখায় অনেকটা ব্যাঘাত ঘটছে।

এমন অবস্থা দেখে তাৎক্ষণিকভাবে মৌলভীবাজার পল্লী-বিদ্যুৎ সমিতির রাজনগর জোনাল অফিসার সহ বিদ্যুৎ বিভাগে কর্মরত অন্যান্য কর্মকর্তাদের সাথে এলাকার বিদ্যুৎ সমস্যা বিষয়াদি নিয়ে আলাপ করি। শেষে অক্লান্ত পরিশ্রম ও নিরলস প্রচেষ্টায় গত ৪ সেপ্টেম্বর ঐ এলাকার ১৪ টি পরিবারের মধ্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়।

এসময় বিদ্যুৎ সরবরাহকালে উপস্তিত ছিলেন-  মৌলভীবাজার পল্লী-বিদ্যুৎ সমিতির রাজনগর জোনাল অফিসের ডিজিএম গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ আ.লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির ধর্ম বিষয়ক সদস্য মোহাম্মদ শহিদ বক্স, ইকরামুল মুসলিমীন মৌলভীবাজার জেলা-শাখার সভাপতি এহসানুল হক জাকারিয়া ও অ্যাডভোকেট উমায়রা  ইসলাম প্রমুখ।

একনজরে মিসেস ফাতেমা পপি- যিনি শুধু মানবসেবী নয় একজন সফল উদ্যোক্তাও বটে। ৩ জুন ১৯৮০ খ্রিস্টাব্দে সদর উপজেলার খলিলপুর ইউপির অন্তর্ভুক্ত হলিমপুর নামক গ্রামের একটি মুসলিম পরিবারে যার জন্ম হয়েছে। তিনি মৌলভীবাজার হিউম্যান রাইস রিভিউ জেলা কমিটির সহসভাপতি হিসেবে বিগত কয়েক বছর যাবত দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত হয়ে স্বেচ্ছায় কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। মহামারি করোনা কালীন অবস্থায় ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণকারী ১৯ জন পুরুষ এবং মহিলাদেরকে ধৌত করতে কাফন দাফনের সার্বিক সহযোগিতা ও ১১৫ টি অক্সিজেন  সরবরাহ কার্যক্রমে সার্বিক সহযোগিতা করেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন ২০


এই বিভাগের আরও খবর

বিজ্ঞাপন ২১

পুরাতন সংবাদ

বিজ্ঞাপন ২২

প্রযুক্তি সহায়তায় আল-ফাহাদ কম্পিউটার